বিশ্বের ১০ শীর্ষ সুন্দরী মুসলিম নারী।

0
153

সৌন্দর্য নারীর শক্তি এবং এটি সবাইকে অনুপ্রাণিত করে। নারীর গ্ল্যামার, সৌন্দর্য, প্রতিভা এবং ব্যক্তিত্ব অনুসারে বিশ্বের ১০ শীর্ষ সুন্দরী মুসলিম নারীর একটি তালিকা করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থেকে এই ১০জন নারীকে নির্বাচিত করা হয়েছে। তারা প্রত্যেকেই কোন না কোন পেশায় জড়িত।

তারা আকর্ষণীয়, অনুপ্রেরণীয় এবং খুব বুদ্ধিমান। এই ১০মুসলিম নারী শুধুমাত্র সুন্দর তা নয়, তারা খুবই প্রতিভাবানও। সামাজিক কাজের জন্যও তারা বিখ্যাত।

১০. মানাল বিনতে মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম সংযুক্ত আরব আমিরাতের একজন বিখ্যাত নারী। দুবাইয়ের ক্ষমতাসীন পরিবারের সদস্য। তিনি দুবাই মহিলা সংস্থার (ডিডব্লিউইউ) সভাপতি হিসেবে সবচেয়ে পরিচিত। মানাল নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করেন।

তিনি ইউএই এর অর্থনৈতিক, সামাজিক, ক্রীড়া, কলা এবং রাজনৈতিক অনাচারে নারীদের সাফল্য অর্জনে সহায়তা করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

০৯. ফাহরিয়া তুরস্কের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তাকে সবাই মার্জিত বলেই জানে। তার চোখ সবার কাছেই লোভনীয়।ফাহরিয়ার বিশাল ফ্যান রয়েছে। তুরস্কের প্রায় সব শ্রেণির কাছেই তার অভিনয় ও ব্যক্তিত্বের প্রশংসা রয়েছে।

০৮. মাহির খান একজন বহুমুখী পাকিস্তানি অভিনেত্রী। তিনি পাকিস্তান বিনোদন শিল্পের উজ্জ্বল তারকা এবং পাকিস্তানের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সর্বোচ্চ বেতনভোগী অভিনেত্রীদের একজন। তিনি টেলিভিশন নাটক হুমসফারে অসাধারণ পারফরম্যান্সের মাধ্যমে খ্যাতি অর্জন করেছেন।

এই প্রোগ্রামে, মাহির অভিনয় দক্ষতা খুব সুন্দরভাবে প্রকাশ করেন। তার পারফরমেন্স শক্তি এবং দক্ষতা প্রশংসনীয় সবাই। ২০১৭ সালের প্রথম দিকে তিনি হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ শুরু করেন। মহির রাহুল ধোলাকিয়া’র ছবি ‘রাইশে’ শাহরুখ খানের সঙ্গে অভিনয় করেন।

০৭. শেখ মাহরা বিনতে মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম। হালকা বাদামী চুল, বাদাম চামড়া এবং বাদামী চোখ তার। তিনি আমিরাতের রাজকুমারী। মাহরা শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুমের মেয়ে। তিনি একজন ভালো ক্রীড়াবিদও। শীর্ষ ১০ বিখ্যাত মুসলিম মহিলা ক্রীড়াবিদদের একজন।

০৬. লেবাননি আবদেলনার মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে সুন্দরী নারী ও বিশ্বে মুসলিম সুন্দরী নারীদের মধ্যে ৬ নাম্বার। তিনি একইসঙ্গে সংগীত শিল্পী, মডেল ও অভিনেত্রী। তার একাধিক অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে, যা আরব বিশ্বে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তার একক নাম “আইন বেস ফি অিনি (যদি সে আমার চোখে দেখতে পায়)”।

০৫. সৌদি সুন্দরী মুনা আবু সুলাইমান। তবে মুনার জন্ম আমেরিকায়। তিনি মুসলিম মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত। মুনাকে একজন আরব, আত্মবিশ্বাসী এবং চিত্তাকর্ষকর ভদ্রমহিলা হিসেবেই সবাই চেনে। যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়াতে ফিলাডেলফিয়াতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। সৌদি আরব, মালয়েশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রে বড় হয়েছেন বিশ্বের মুসলিম সুন্দরী নারীদের মধ্যে ৫ নাম্বার এই সুন্দরী।

০৪. ভারতীয় জারিন খান সবচেয়ে সুন্দর মুসলিম নারীদের মধ্যে অন্যতম। তিনি ভারতীয় অভিনেত্রী এবং মডেল। ভারতের মহারাষ্ট্রে একটি পাথর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। জারিন খান বিভিন্ন টিভি সিরিজ, বাণিজ্যিক এবং চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। সুপারস্টার সালমান খানসহ ভারতের নামকরা অনেক অভিনেতার সঙ্গে জারিন সিনেমায় অভিয়ন করেছেন।

০৩. মুসলিম বিশ্ব সুন্দরীদের ৩ নাম্বার তালিকায় আছেন ফিলিস্তিনি সুন্দরী নাসরিন তাফিস। সিরিয়ার আলেপ্পোতে জন্ম গ্রহণ করেন নাসরিন। সিরিয় কবি এবং লেখক ইউসেফ তাফেস এবং আলজেরীয় মায়ের ঘরে জন্ম নেন তিনি । তার সুন্দর চোখ সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

০২. পাকিস্তানি রেহাম খান, সবচেয়ে সুন্দরী মুসলিম মহিলাদের মধ্যে ২ নাম্বার স্থানে আছেন। তিনি সাংবাদিক, উপস্থাপক, এবং একটি চলচ্চিত্রে প্রযোজক। ২০১৫ সালে বিখ্যাত পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ এবং সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খানকে বিয়ে করে সবার নজরে আসেন।

০১. বিশ্বসেরা ১০ মুসলিম সুন্দরী নারীদের তালিকায় এক নাম্বারে আছেন সৌদি রাজকুমারী আমেরাহ বিনতে আইডান বিন নায়েফ আল তাওয়ীল আল ওতাইবি। সৌদি আরবে নারীর ক্ষমতায়নে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য তিনি সুপরিচিত।

নিউ হ্যাভেন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজকুমারী আমিরাহ ব্যবসা প্রশাসন ডিগ্রী নিয়েছেন। তিনি আল-ওয়ালেদ বিন তালাল ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান এবং সিলতেচ এ ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য। আমিরাহকে মধ্যপ্রচ্যের সবচেয়ে শক্তিশালী মহিলাদের মধ্যে একজন মনে করা হয়।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here